নাগেশ্বরীত চাইর ঠ্যাং এলা চড়াইর বাচ্চা হইছে

মামুনুর রশীদ মামুন ।। দুনিয়্যাত তাইজ্জব তাইজ্জব কত জিনিস যে দেহা যায় তার খ্যাও নাই। এদন একটা অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘইটছে কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরী উপজেলার কচাকাটা ইউনিয়নের ব্যাপারিটারী গ্রামের আমিনুল ইসলামের বাড়িত। 

চড়াইর ডিম ফুটি বাচ্চা বেবাইচে তার ৪ টা ঠ্যাং। ৪ ঠ্যাং নিয়ে ফুটি বিড়া চড়াইর বাচ্ছাটাক দেইখপ্যার খাতে গ্রামের মানুষ পালা হবাইনচে। চার ঠ্যাং নিয়ে সে বাচ্চা তার মার সাথত আইগনার এমাথা ওমাথা দৌড়ি বেড়ায় ।

খবর পাচি, গত দুই-সপ্তাহ আগত আমিনুল ইসলামের মাইয়্যার পোষা চড়াইর ডিম থাকি স্বাভাবিক নিয়মে বাচ্চাটা ফুটি বিড়ায়। পরে ওমরা দ্যাহে একটা ডিম থাকি চার ঠ্যাং এলা বাচ্চা হইছে। 

আমিনুল ইসলামের স্ত্রী নুরী আক্তার কয়, মোর পোষা চড়াই সাতটা ডিম পাইড়ছে।  ডিমগুলো উসুমত দিচং। সোগ কয়টায় তার ঘুলাইছে। খালি দুইটা ডিম থাকি দুইটা বাচ্চা হইছে। তারে একটা বাচ্চার চাইরটা ঠ্যাং হইছে। বাচ্চাটা ভালকরি হাটি বেরবাড় পায়। 

নাগেশ্বরী উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. রফিকুল ইসলাম কয়, জন্মগত ভেজালের জইন্যে এদন বাচ্চা জন্মিব্যার পায়।

Post a Comment

Previous Post Next Post