আটুস

 

ভবেশ রায়
আগিলা কাথা কতো আবো শুনির মোনায় মোক,
ঐ লা কাথা শুনির সমাই নানাগে তিষ্যা ভোগ !
নদী গেলা সোতাল ছিলো নৌকা ভাসিছে জলোত ,
বিরাট বিরাট গহীন কুড়াত মাছ মারিসে বাহোত !
ঘাড়োত করি মানষি বোলে পালকি উভাইসে ,
তারে ভিতোর বিয়াও করি কৈনা আনিসে ?
আজুক যেলা বিয়াও করিস,সেলা তোর বছর বারো
তিন কুড়ি টাকা পোন দিয়া তোক বিয়াও করিসে আরো?
ছালামুলানি বিয়াও হোইসে ভেল্লা কৈনা ছাওয়ার ,
বুড়া বামোনোক বেটি দিয়া-গরীবে পাইসিলো নিস্তার !
নদীর পাড়ের শ্মশান ঘাটোত সহমরণের চিতাত,
কেমন করি ছুবিয়া মারিসে সতীদাহনের প্রথাত ?
ক ক্যানে আবো-আগিলা দিনের ঐলা কাথা সূর করি
কঁকোয়া বাঁশের থুরিত করি দই পাতিসেন ক্যাং করি ?
আগিলা দিনোত অসুখ হোইলে বদ্যি আসিসে বাড়িত,
হাতের নাড়ী টিপিয়া দেখি, ঔষৌধ দিসে জ্বর জারিত !
আগিলা দিনের কাথালা শুনিলে ভাবিয়া নাপাও খ্যাও,
ঘুণ্টিঘাটি-খুদুনীউক্টি নিকিলাইসে সমাজ চালেবার ভাও।

Post a Comment

Previous Post Next Post