স্বপ্ন পূরণ

 


কৌশিক রায়
প্রিয়াঙ্কা, ছোট বেলা থাকি স্বপ্ন দেখে ভাল করি বই পড়ি চাকরি করিবে। কিনতু প্রিয়াঙ্কার বাপ হইল গরীব। বেটিক ভাল করি বই পড়ের পায় না, সামাইন‍্য টাকা-পাইসার অভাবে। প্রিয়াঙ্কা বই পড়াত মাথাও ভাল। বাপের অভাব দ‍্যাখি প্রিয়াঙ্কা প্রাইভেট পড়া বাদ দিসে। এ‍্যামন অভাব দ‍্যাখি কাজের ফাকে প্রিয়াঙ্কা সবসমায় বই নিয়া থাকে। প্রিয়াঙ্কা ছোটবেলা থাকি বাপ-মাও এ‍্যারঠে শুনি আইচ্চে, চ‍্যাংরি মানসিলার নিজের কুনো পরিচয় নাই। জন্মের পরে 'বাপ"-'মা"-র পরিচয়, বিয়ার পরে 'সোয়ামীর" পরিচয় নিয়া চলা খায়। এ‍্যাই কাথাটা শুনার পর থাকি প্রিয়াঙ্কা মনে মনে ঠিক করে, ভাল করি বই পড়ি নিজের পরিচয় বাড়ে তুলিবে।

একদিন হঠাত করি প্রিয়াঙ্কার মাও ' ব্লাড ক‍্যান্সারোত " অসুস্থ হয়া পড়িল। ডাক্তার কয় প্রিয়াঙ্কার মাও বদায় ম‍্যালা দিন বাঁচিবার না হয়। টাকা- পাইসাও ত‍্যামন নাই উমারঠে। আলমারিত যতলা টাকা জমে থুইসে ওইল‍্যা দিয়াও বদায় বড়ো ডাক্তারেরঠে নিগা যাবে না। প্রিয়াঙ্কার মাও হঠাত্ করি প্রিয়াঙ্কার বাদে চ‍্যাংরা দেখির ম‍্যালা ঘটক পাঠায়। প্রিয়াঙ্কার বিয়াও ঠিক হইল। প্রিয়াঙ্কার মাও প্রিয়াঙ্কাক কইল-' মাগো, মুই মরির আগোত তোর বিয়াও দেখি যাবার চাঙ।" প্রিয়াঙ্কা, উয়ার মাওয়ের ওদি তাকে নক্কতে রাজি হয়া যায়। আর কয়দিনের ভিতিরাতে ১৪ বছর বয়সে প্রিয়াঙ্কার বিয়াও হয়া যায়।
    
বিয়ার পরে প্রিয়াঙ্কা বুঝির পায় এলা উয়ায় খাচাত বন্দি হইল। সোয়ামীর কাথাতে উয়াক চলা খাবে সবসমায়। প্রিয়াঙ্কার শ্বশুরবাড়ির মানসিলাও ত‍্যামন একটা ভাল না হয়। য‍্যালায়-স‍্যালায় প্রিয়াঙ্কার উপরোত্ অকথ‍্য অইত‍্যাচার করে। প্রিয়াঙ্কার সোয়ামীটাও মদ খায়া দিনাও প্রিয়াঙ্কার উপরোত মাইরধর শুরু করি দ‍্যায়।

প্রিয়াঙ্কার বিয়ার ৫ বছর পূর্ণ হইল। প্রিয়াঙ্কার  একেনা বেটা হইল, নাম থুইল 'বিকাশ "। প্রিয়াঙ্কা একদিন ঠিক করি নিল। এ‍্যামন অইত‍্যাচার আর সইহ‍্য করির পাবে না। প্রিয়াঙ্কা স্বপ্ন পূরণ করিবে। চাকরি পায়া নিজের পায়ে দাড়াবে। প্রিয়াঙ্কার স্বপ্নের কাথা তামান উয়ার সোয়ামীক কইল। তারপরে উয়ার সোয়ামীক কইল- ' তোর চাকরি করা হবে না। ঘরের বায়রাত যাবার পাবু না। সবসমায় তোক ঘরোতে থাকা খাবে। আর যুদি ঘরের বায়রা যাইস, সারাজীবনের জইন‍্যে ঘরের বায়রাতে থাকা খাবে।"

প্রিয়াঙ্কা ভাবিতে থাকে এ‍্যামন করি আর কতদিন সইহ‍্য করিবে। ছিরা কাপড়, না পায় ভাল মতোন সকাল- সইন্ধ‍্যা পেট ভরে খাবার। আর প্রত‍্যেকদিন সোয়ামী মদ্ খায়া বাড়িত্ আসি অইত‍্যাচার করে। ইমার এ‍্যামন অইত‍্যাচারোতে "বিকাশ' একবেলা ভাল মতোন নিন পারির না পায়, সবসমায় কান্দি থাকে। শ্বশুর -শ্বাশুড়ির অশ্লীল মুখের ভাষা শুনি সইহ‍্য করির পায় না প্রিয়াঙ্কা। ইমার মতো মানসিলারঠে নইলে বিকাশ বদায় ভাল মানসি হয়া উঠির পাবার না হয়।

প্রিয়াঙ্কা পরে ঠিক করি ন‍্যায় বাড়ি থাকি একেবারের জইন‍্যে চলি যাবে। ভাল একটা স্কুলোত্ বিকাশোক ভর্তি করে দিবে। মানসির মতো মানসি করাবে বিকাশোক। প্রিয়াঙ্কা আন্ধারোত্ উয়ার সোয়ামীর 'মানি ব‍্যাগ" থাকি ৯,০০০টাকা নিকলি, বিকাশের হাত ধরি বাড়ির বায়রা চলি যায়। যায়া ঘাটার ধারোত আশ্রয় ন‍্যায় প্রিয়াঙ্কা আর বিকাশ। পরে অলফ্ টাকা দিয়া ছোট্ট ঘর ভাড়া করি ন‍্যায়। প্রিয়াঙ্কা একটা হোঠেলোত জয়েন হইল কামাইর বাদে। কয়টা টাকাও পাইল হঠেলোত কামাই করি। আর স‍্যাই টাকা দিয়া কোনমতে সংসার চলে।

বিকাশ বড়ো হইল। ভাল একটা স্কুলোত্ ভর্তি করে দিল প্রিয়াঙ্কা। প্রিয়াঙ্কা হোঠেলোত্ যা টাকা পায় তা দিয়া কোনমতন সংসার চলে। প্রিয়াঙ্কা ঠিক করিল হোঠেলোত একব‍্যালা কামাই করি আসি, নার্সের ট্রেনিং ন‍্যাওয়া শুরু করি দিবে। 

এ‍্যামন করি পাঁচ বছর পার হয়া গেল। হোঠেলোত কামাই করি যা টাকা পায় স‍্যাই টাকা দিয়া বিকাশের বইপড়া, আর নিজের ট্রেনিং ন‍্যাওয়া সম্পূর্ণ হইল। প্রিয়াঙ্কা নার্সের ট্রেনিংওোত পাস করিল। ভাল একটা হসপিটালোত চাকরি পাইল প্রিয়াঙ্কা। চাকরিত জয়েন হয়া ভাল মাইনেও  পাইল। তামান সামলেয়া মন দিয়া কাজ করির জইন‍্যে সগারে ভাল সুনাম পাইল। প্রিয়াঙ্কা চায় উয়ার বেটাও বড়ো হয়া যুদি ম‍্যালা বড়ো ডাক্তার হবার পায়।।

Post a Comment

Previous Post Next Post